এপ্রিল ২৩, ২০২৪

‘ঋতুপর্ণার সঙ্গে আমার ২৫ বছরের পথচলা। আমি খুব কাছে থেকে দেখেছি, মানুষের পাশে থেকে তিনি কীভাবে সহযোগিতা করেন। মানুষের কল্যাণ করার জন্য একটা মানুষের মধ্যে যেসব গুণ থাকতে হয় ঋতুপর্ণার থেকে তার বেশিরভাগ আমি শিখেছি। তার ভালো কাজগুলো আমাকে অনেক বেশি প্রভাবিত করেছে। সেজন্যই হয়তো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা ১০ আসনের মত গুরুত্বপূর্ণ আসনে নৌকা প্রতীক আমার হাতে তুলে দিয়েছেন। ঋতুপর্ণা এদেশে এসেছে তাই তাকে আমাদের নৌকা দিয়ে তাকে বরণ করে নিতে চাই।’

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে এপ্রিলে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে সুচিত্রা সেন আন্তর্জাতিক বাংলা চলচ্চিত্র উৎসব-২০১৪। সেই উৎসব নিয়ে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত একটি সংবাদ সম্মেলনে অংশ নেন ঋতুপর্ণা। সেখানে অতিথি হিসেবে হাজির ছিলেন নায়ক-সংসদ সদস্য ফেরদৌসও। সেখানেই ঋতুপর্ণার হাতে আওয়ামী লীগের প্রতীক হিসেবে নৌকা তুলে দেন তিনি।

অভিনয় থেকে রাজনীতিতে এসেছেন ফেরদৌস। তার দেখানো পথে ঋতুপর্ণাকে হাটার কথাও বলেন ফেরদৌস। তার কথায়, ‘মানুষের সেবক হওয়ার মতো সব গুণ ঋতুপর্ণার মধ্যে আছে। আমি চাইবো তিনি যেন আমার দেখানো পথে হেটে রাজনীতিতে যোগ দেন। প্রধানমন্ত্রী যদি আমাকে এই ক্ষমতাটুকু না দিতেন তাহলে কিন্তু মানুষের কল্যাণে কাজ করতে পারতাম না। আমি চাই, ভারত সরকার এটা যেন ভালোভাবে দেখেন। তাহলে আমরা দুই বন্ধু মিলে দুই দেশের সম্পর্ক-মৈত্রী আরও দৃঢ় করতে পারবো।’

ফেরদৌস আহমেদ বলেন, ‘বিশ্বজুড়ে বাংলা চলচ্চিত্র ছড়িয়ে দেয়ার এই প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানাই। ভাষার মাসে জীবন উৎসর্গ করা শহীদদের স্মরণ করতে চাই। আমরা বাংলা ভাষার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আমাদের কাজের মাধ্যমে, বাংলা চলচ্চিত্রের মাধ্যমে।’

সংবাদ সম্মেলনে আরও ছিলেন উৎসব আয়োজক কমিটির উপদেষ্টা একুশ পদকপ্রাপ্ত লেখক, বিজ্ঞানী ও মুক্তিযোদ্ধা ড. নূরুন নবী ও অভিনয়শিল্পী লুতফুন নাহনি লতা, উৎসবের সমন্বয়কারী মো. আবদুল হামিদ, অনুষ্ঠান সহযোগী স্বাধীন মজুমদার ও এলি বড়ুয়া এবং ঢাকা ও কলকাতা কো-অর্ডিনেটর যথাক্রমে পিয়াল হোসেন ও শর্মিষ্ঠা ঘোষ, জুরি সদস্য জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত বাংলাদেশের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা মোরশেদুল ইসলাম।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *