এপ্রিল ২৩, ২০২৪

ইউক্রেনে প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা পাঠানোর পরিকল্পনা চূড়ান্ত করছে যুক্তরাষ্ট্র। মূলত ওয়াশিংটনের এই সিদ্ধান্তটি চলতি সপ্তাহের মধ্যেই ঘোষণা করা হতে পারে। মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) তিনজন মার্কিন কর্মকর্তা রয়টার্সকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

বুধবার (১৪ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে রয়টার্স জানিয়েছে, রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলা মোকাবিলায় ইউক্রেন তার পশ্চিমা অংশীদারদের কাছে বিমান প্রতিরক্ষার জন্য আবেদন জানিয়ে আসছে। মূলত রাশিয়াকে রুখতে ইউক্রেন যেসব সামরিক সহায়তা চায় তার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি প্যাট্রিয়ট এয়ার ডিফেন্স সিস্টেমও রয়েছে।

বার্তাসংস্থাটি বলছে, স্থল-ভিত্তিক আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা যেমন রেথিয়ন টেকনোলজি কর্পোরেশনের তৈরি প্যাট্রিয়ট ধেয়ে আসা মিসাইলকে আটকানোর জন্য তৈরি করা হয়েছে। এছাড়া প্যাট্রিয়টকে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে উন্নত বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাগুলোর মধ্যে একটি হিসাবে বিবেচনা করা হয়।

তবে যুক্তরাষ্ট্র এটি সাধারণত বেশ স্বল্প পরিমাণে সরবরাহ করে থাকে এবং এই কারণে সারা বিশ্বের মার্কিন মিত্ররা এটি পাওয়ার জন্য কার্যত প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে থাকে।

ট্রাম্প প্রশাসনের সময় হোয়াইট হাউসে ইউক্রেন নীতির নেতৃত্বদানকারী মার্কিন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলেকজান্ডার ভিন্ডম্যান বলেছেন, ‘এটি খুবই, খুবই গুরুত্বপূর্ণ।’

প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ‘ইউক্রেনীয়দের বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে যথেষ্ট সক্ষম হবে। বিশেষ করে রাশিয়ানরা যদি ইরান থেকে স্বল্প-পাল্লার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে আসে’ তারপরও।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে দু’জন কর্মকর্তা বলেছেন, ইউক্রেনকে প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা দেওয়ার ঘোষণাটি বৃহস্পতিবারের মধ্যে আসতে পারে। তবে বিষয়টি এখনও মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন এবং প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের আনুষ্ঠানিক অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

মার্কিন প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে প্যাট্রিয়ট সিস্টেম সম্পর্কে সামনে আসা এই রিপোর্টের বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছে।

অন্যদিকে ইউক্রেনের কর্মকর্তাদের কাছ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে কিয়েভ মঙ্গলবার ওয়াশিংটনের সাথে উচ্চ পর্যায়ের সামরিক আলোচনা করেছে বলে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির কার্যালয় জানিয়েছে।

একজন কর্মকর্তা বলেছেন, প্যাট্রিয়ট প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ও সরঞ্জাম ইউক্রেনে পাঠানোর আগে ইউক্রেনীয় বাহিনীকে সম্ভবত জার্মানিতে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। আলেকজান্ডার ভিন্ডম্যান বলেন, প্রশিক্ষণে কয়েক মাস সময় লাগতে পারে।

অবশ্য প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার সংস্করণ, এর পরিসীমা বা কতটি ইউনিট ইউক্রেনে পাঠানো হবে সে বিষয়ে তাৎক্ষণিকভাবে কোনও তথ্য পাওয়া যায়নি।

এদিকে রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভ ইউক্রেনকে প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা প্রদানের বিরুদ্ধে ন্যাটোকে সতর্ক করেছেন এবং সম্ভবত মস্কো যুক্তরাষ্ট্রের এই ধরনের পদক্ষেপকে উত্তেজনার আরও বৃদ্ধি হিসাবে বিবেচনা করবে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *