ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২৪

যানবাহন চলাচলের জন্য দেশের ২৫ জেলায় একই দিনে ১০০টি সেতুর উদ্বোধন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (৭ নভেম্বর) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে সোমবার সকালে এই সেতুগুলোর উদ্বোধন করেন সরকারপ্রধান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘দ্বিতীয়বার সরকারে আসার পর বিভিন্ন সড়কে প্রায় ১ লাখ ১৩ হাজার ৩০৩ মিটার সেতু পুননির্মাণ ও ২১ হাজার ২৬৭ মিটার কালভার্ট নির্মাণ করেছি। বহু সড়ক আজকে আমরা মহাসড়কে রূপান্তর করে দিচ্ছি, যাতে যোগাযোগ ব্যবস্থা আরও উন্নত হয়। চার লেন বা ছয় লেন করেও আমরা সেতু করে দিচ্ছি, কারণ আমরা চাই যোগাযোগ ব্যবস্থা আরও উন্নত হোক।’

নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণের গৌরবগাঁথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা এমনভাবে করে দিচ্ছি যেন বাংলাদেশ শুধু দেশের অভ্যন্তরে না এশিয়ান হাইওয়ে ও এশিয়ান রেলওয়ের সঙ্গেও যেন যুক্ত হতে পারি। ট্রান্স এশিয়ান হাইওয়ের সঙ্গে যুক্ত হয়ে আন্তর্জাতিক যোগাযোগ যেন আমাদের এগিয়ে যেতে পারে সেদিকে বিশেষ দৃষ্টি দিয়ে বিভিন্ন সড়ক ও রেল ব্রিজ করে দিচ্ছি।’

এসময় দেশের সুনামগঞ্জ, বরিশাল, খাগড়াছড়ি ও চট্টগ্রামপ্রান্ত থেকে জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তারাও যুক্ত হন।

সাত বিভাগে ২৫টি জেলায় এই ১০০টি সেতু নির্মাণে মোট ব্যয় হয়েছে ৮৭৯ কোটি ৬১ লাখ টাকা। যার পুরোটাই নির্মিত হয়েছে সরকারি অর্থায়নে। এই সেতুগুলোর মোট দৈর্ঘ্য ৫ হাজার ৪৯৪ দশমিক ১৩ মিটার।

প্রকল্পটি বাস্তবায়নে কাজ করেছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের আওতাধীন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর।

ঢাকা বিভাগে সেতুর সংখ্যা ৭টি, চট্টগ্রাম বিভাগে ৪৬টি, ময়মনসিংহ বিভাগে ৬টি, সিলেট বিভাগে ১৭টি বরিশাল বিভাগে ১৪টি, রাজশাহী বিভাগে ৭টি এবং রংপুর বিভাগে ৩টি।

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরী বলেন, ‘২০০৯ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত সারা দেশে এক হাজার ৫০৮টি সেতু এবং ৭ হাজার ৪৯৮ কালভার্ট নির্মাণ করেছে।’

তিনি জানান, সারা দেশে নির্মাণাধীন রয়েছে আরও ১১৮টি সেতু, যা আগামী বছর কাজ শেষ হবে আশা করা হচ্ছে। পার্বত্য অঞ্চলে আরও ১১৫টি সেতু নির্মাণে প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *