ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪

বিরল রোগ মায়োসাইটিসে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন ভারতের দক্ষিণী সিনেমার তুমুল জনপ্রিয় অভিনেত্রী সামান্থা রুথ প্রভু।

হাসপাতালের বেডে আধশোয়া অবস্থার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করে শনিবার এ তথ্য নিজেই জানিয়েছিলেন দ্য ফ্যামিলি ম্যান টু খ্যাত অভিনেত্রী।

অভিনেত্রীর এমন খবরে ভক্ত-অনুরাগীরা তো বটেই, দীর্ঘদিনের সহকর্মীরাও তার দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন।

সামান্থার সেই টুইটার পোস্টে তেলেগু সুপারস্টার জুনিয়র এনটিআর লেখেন, ‘শিগগিরই সুস্থ হয়ে উঠো স্যাম। তোমাকে সব ধরনের শক্তি পাঠাচ্ছি।’

মালয়ালাম সুপারস্টার দুলকার সালমান লেখেন, ‘তোমার কাছে আরও শক্তি আছে স্যাম। যেমন তুমি বলেছো, এটাও কেটে যাবে।’

এদিকে সামান্থার ইনস্টাগ্রামের পোস্টে তেলেগু ও তামিল ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাশি খান্না লেখেন, ‘যত্ন নিও স্যাম।’

এ ছাড়াও দ্রুত আরোগ্য কামনা করে মন্তব্য করেন, বলিউড তারকা রীতেশ দেশমুখ, জেনিলিয়া ডিসুজা ও উর্বশী রাউতেলা। এর মন্তব্যের ঘরে ভালোবাসায় ইমোতে ভরিয়ে দিয়েছেন, কৃতি শ্যানন, কিয়ারা আদভানি ও জাহ্নবী কাপুরসহ অনেক তারকা।

শনিবার নিজের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অ্যাকাউন্টগুলো নিজের অসুস্থতার কথা জানিয়ে সামান্থা লেখেন, ‘কয়েক মাস আগে আমার মায়োসাইটিস নামক একটি অটোইমিউন অবস্থা ধরা পড়ে। আশা করেছিলাম সুস্থ হওয়ার পর এটি সবাইকে জানাব। কিন্তু এটা আমার আশার চেয়ে একটু বেশি সময় নিচ্ছে।

‘আমি ধীরে ধীরে আমি বুঝতে পারছি যে, আমাদের সবসময় নিজেকে শক্তিশালী হিসেবে তুলে ধরার দরকার নেই। এই দুর্বলতাটা গ্রহণ করাও একটা বিষয়, যার সঙ্গে আমি এখন লড়াই করছি। খুব শিগগিরই আমি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠতে পারব বলে আশাবাদী চিকিৎসকরা।’

আত্মবিশ্বাসী এই অভিনেত্রী আরও লেখেন, ‘শারীরিক ও মানসিকভাবে আমার ভালো দিন ও খারাপ দিন ছিল। এমনকি যখন মনে হচ্ছিল আমি আর একটি দিন সামলাতে পারব না, কোনোভাবে সেই মুহূর্তটিও পেরিয়ে এসেছি। আমি অনুমান করি এর অর্থ হতে পারে যে আমি সুস্থ হওয়ার দিকে আরও একদিন এগিয়ে গেলাম।

সবশেষে সবাইকে ভালোবাসা জানিয়ে অভিনেত্রী লেখেন, ‘এটাও কেটে যাবে।’

এদিকে আগামী ১১ নভেম্বর প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে যাচ্ছে সামান্থার অভিনীত সারভাইভাল থ্রিলার যশোধা। এ ছাড়াও তার হাতে রয়েছে পৌরাণিক গল্পের সিনেমা শকুন্তলম।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *