এপ্রিল ২৩, ২০২৪

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘রিজার্ভ ও ব্যাংকের টাকা নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। রিজার্ভের কোনো সমস্যা নেই। ব্যাংকে টাকা নেই কথাটাও মিথ্যা। প্রতিটি ব্যাংকে যথেষ্ট টাকা রয়েছে। করোনাভাইরাসের কারণে সারা পৃথিবীতে অর্থনৈতিক মন্দা চলছে। কিন্তু বাংলাদেশে আমরা অর্থনীতিকে শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছি। রপ্তানি বেড়েছে। রেমিট্যান্স আসছে। কর কালেকশন বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশের অর্থনীতি এখনও যথেষ্ট শক্তিশালী।’

বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) যশোর শামস-উল হুদা স্টেডিয়ামে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাসের কারণে সারা পৃথিবীতে অর্থনৈতিক মন্দা চলছে। কিন্তু বাংলাদেশে আমরা অর্থনীতিকে শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছি। রপ্তানি বেড়েছে। রেমিট্যান্স আসছে। কর কালেকশন বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশের অর্থনীতি এখনও যথেষ্ট শক্তিশালী।’

করোনা মহামারি এবং চলমান রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে উদ্ভূত অর্থনৈতিক মন্দা মোকাবেলায় সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানান সরকার প্রধান।

দেশের প্রত্যেককে উৎপাদন বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘যার যতটুকু ফাঁকা জায়গা আছে সেখানে কিছু না কিছু উৎপাদন করুন। সেটা হোক একটি মরিচ গাছ কিংবা একটি টমেটো গাছ। খাদ্য উৎপাদন অব্যাহত রাখলে দুর্ভিক্ষ আমাদের স্পর্শ করতে পারবে না।’

বিএনপি-জামায়াত কী দিয়েছে- জনগণের কাছে এমন প্রশ্ন রেখে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘তারা দিয়েছে অস্ত্র, দিয়েছে খুন। এই যশোরে শামসুর রহমান মুকুলকে হত্যা করা হয়েছে। খুলনায় মঞ্জুরুল ইমাম, মানিক শাহ, বালু- এভাবে একে একে সাংবাদিকদের হত্যা করা হয়েছে।

শুধু রক্ত আর হত্যা ছাড়া বিএনপি তো আর কিছু দিতে পারেনি দেশের মানুষকে। নিজেরা লুটপাট করেছে। মানুষের অর্থ পাচার করেছে। মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছে। মানুষের মুখের গ্রাস কেড়ে নিয়ে নিজেদের উদরপূর্তি করেছে।’

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলনের সভাপতিত্বে সভা পরিচালনা করছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার। সভায় আরও বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, পীযূষ ভট্টাচার্য প্রমুখ।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *