এপ্রিল ১৪, ২০২৪

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) প্রতিনিধি দল আগামী বুধবার ঢাকায় আসছে। সফরকারী দলটি ৯ নভেম্বর পর্যন্ত ১৫ দিন ঢাকায় অবস্থান করবে। এ সময় তারা বাংলাদেশের জন্য আগামীর ঋণ কর্মসূচি এবং নতুন করে দীর্ঘমেয়াদে ঋণ দিতে অর্থনৈতিক ও আর্থিক খাতের সংস্কার ও নীতি নিয়ে আলোচনা করবে।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে সংস্থাটি এসব তথ্য জানিয়েছে। ঢাকায় আইএমএফ মিশনের প্রধান রাহুল আনন্দ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন। প্রতিনিধিরা কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পাশাপাশি বাংলাদেশে সরকারের নীতি নির্ধারক এবং অন্যান্য অংশীজনের সঙ্গেও আলোচনা করবেন। বিবৃতিতে বলা হয়, এ প্রতিনিধি দলের মাধ্যমে ঋণ কর্মসূচি নিয়ে কথাবার্তা শুরু হবে। আগামী মাসগুলোতেও এ আলোচনা চলমান থাকবে।

করোনা মহামারি ও ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে বাণিজ্য ঘাটতির কারণে দেশের রিজার্ভের ওপর চাপ তৈরি হয়। এ প্রেক্ষাপটে ডলার সাশ্রয়ে অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন উদ্যোগের পাশাপাশি বিদেশি উৎস থেকে অর্থায়ন পাওয়ার চেষ্টা করছে সরকার। এরই অংশ হিসেবে বাংলাদেশ আইএমএফের কাছ থেকে সাড়ে ৪০০ কোটি ডলার ঋণ চায়।

এরই মধ্যে গত রোববার ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার আন্তর্জাতিক অর্থায়নকারী সংস্থাটির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে প্রস্তাবিত ঋণের বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করতে বৈঠক করেছেন। বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের জানান, চলতি অর্থবছরেই প্রাথমিকভাবে দেড় বিলিয়ন ডলার পেতে আলোচনা হয়েছে। আইএমএফ ও বিশ্বব্যাংকের বার্ষিক সাধারণ সভায় এবার তিনি অর্থমন্ত্রীর অনুপস্থিতিতে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। সাইডলাইনে বিশ্বব্যাংকের কর্মকর্তাদের সঙ্গেও পৃথক বৈঠক করেন গভর্নর। সেখানে উন্নয়ন সহযোগী সংস্থাটির কাছ থেকে ১০০ কোটি ডলার বাজেট সহায়তা নিয়ে কথা বলেন।

সব মিলিয়ে দুই সংস্থার কাছে সাড়ে ৫০০ কোটি ডলার ঋণের প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ। এর বাইরে জাপানের কাছ থেকেও বাজেট সহায়তার আওতায় ঋণ পেতে সরকার চেষ্টা চালাচ্ছে।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *