ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২৪

গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বে ভারতকে গুঁড়িয়ে দেওয়ার পর পাকিস্তানকে টুর্নামেন্টের ফেভারিট হিসেবে দেখা হচ্ছিল। তবে সেবার সেমিফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে বিদায়ঘণ্টা বেজেছিল বাবর আজমের দলের। ২০২১ সালের সেই আক্ষেপ ২০২২ সালে এসে ঘুচিয়েছে পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ডকে ৭ উইকেটে হারিয়ে পৌঁছে গেছে বিশ্বকাপের ফাইনালে।

এখন দলটি অপেক্ষায় আছে আগামী রোববার ফাইনালের। অবশ্য প্রতিপক্ষ এখনো নির্ধারিত হয়নি। আগামীকাল দ্বিতীয় সেমিফাইনালে নামবে ভারত-ইংল্যান্ড। সেই ম্যাচের জয়ী দলের বিপক্ষে রোববার খেলবে পাকিস্তান।

সেই ফাইনালে কার মুখোমুখি হতে চান, এমন কোনো প্রশ্ন অবশ্য ম্যাথিউ হেইডেনের দিকে ধেয়ে যায়নি। তিনি নিজেই জানালেন, ভারতের মুখোমুখি হতে চান। কেন চান, সেটাও জানালেন তিনি।

ম্যাচ শেষে হেইডেন বলেন, ‘ফ্যান্টাস্টিক। আজকের রাতটি খুব বিশেষ কিছু। আমাদের সামনে দারুণ এক সুযোগ চলে এসেছে।’

বাবর-রিজওয়ান রেকর্ড জুটিতে পাকিস্তানকে ভিড়িয়েছেন জয়ের বন্দরে। তবে এই জয়ের পেছনে সবারই অবদান দেখছেন হেইডেন। বললেন, ‘সবাই বাবর ও রিজওয়ানের কথা বলবে, কিন্তু আমাদের বোলিং আক্রমণও অবিশ্বাস্য কাজ করেছে। আমাদের সীমানা কেবল আকাশ।’

বাবর আর রিজওয়ানের প্রশংসায় তিনি বলেন, ‘দুই জনই পাকিস্তানের হয়ে অনেক বছর ধরে এটা করেছে এবং আমি হারিসের কথাও উল্লেখ করতে চাই। সে নেটে প্রতিটি ফাস্ট বোলারের মুখোমুখি হয় এবং তাদের দারুণ খেলে।’

বোলারদেরও ভূয়সী প্রশংসা করেন পাকিস্তানের এই পরামর্শক, ‘এখানে বোলারদের মানিয়ে নিতে হয়েছিল শুরুতে। আমরা অবশেষে শাহিনকে ফর্মে ফেরাতে পেরেছি। এই ছেলেরা যদি একবার রিভার্স সুইং পেয়ে যায়, তাদের সামলানো কঠিন হয়ে যাবে।’

এরপরই উঠে এল ভারত প্রসঙ্গ। কেন ভারতকে চান, এই বিষয়ে হেইডেন বলেন, ‘হারিস ১৫০ কিলোমিটার বেগে বল করতে পারে। এটা দেখার জন্যই আমি ফাইনালে ভারতের বিরুদ্ধে মোকাবেলা করতে চাই। আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না, এটা এমন কিছুই হবে।’

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *