জুন ১৭, ২০২৪

সংসদ কার্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক জানিয়েছেন, ২০২৩-২৪ অর্থবছরে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্টে উপকারভোগীর সংখ্যা বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে।

আজ জাতীয় সংসদে সরকারি দলের সদস্য এম. আবদুল লতিফের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী একথা জানান।

আ ক ম মোজাম্মেল হক জানান, দেশের সকল স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত অসচ্ছল পরিবারের মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রম যাতে অর্থের অভাবে ব্যাহত না হয় তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি ও টিউশন ফি প্রদান করা হয়। প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট থেকে ৬ষ্ঠ থেকে স্নাতক ও সমমান পর্যায়ে অধ্যয়নরত দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীর মাঝে উপবৃত্তি ও টিউশন ফির অর্থ উপকারভোগী শিক্ষার্থী কর্তৃক কোনো প্রকার ক্যাশ আউট চার্জ ছাড়াই সরাসরি উপকারভোগী শিক্ষার্থীর একাউন্টে মোবাইল ব্যাংকিং ও অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে প্রেরণ করা হয়। চলতি শিক্ষাবর্ষ/অর্থ বছরে উপবৃত্তি বাবদ এখনো কোনো অর্থ বিতরণ করা হয়নি। চলতি অর্থ বছরের উপবৃত্তির অর্থ চলতি জুন মাসে বিতরণ করা হবে।

তিনি জানান, ২০২২-২৩ অর্থবছরে ৬ষ্ঠ থেকে স্নাতক ও সমমান পর্যায়ের ৫৯ লাখ ৬২ হাজার শিক্ষার্থীর মাঝে উপবৃত্তি ও টিউশন ফি বাবদ ২ হাজার ৫৮ কোটি ৬০ লাখ ৯০ হাজার ৭২০ টাকা বিতরণ করা হয়েছে। ২০২৩-২৪ অর্থবছরে উপকারভোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি করার পরিকল্পনা রয়েছে। ২০২৩-২৪ অর্থবছরে ৬ষ্ঠ থেকে স্নাতক পর্যায়ে ৬০ লাখ ৭১ হাজার শিক্ষার্থীর বিপরীতে উপবৃত্তি ও টিউশন ফি বাবদ ২ হাজার ২৮৬ কোটি ৬৯ লাখ ৮৫ হাজার টাকা বিতরণের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। যা গত বছরে উপবৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যার থেকে ১ লাখ ৯ হাজার জন বেশি এবং গত বছরে বিতরণকৃত টাকার পরিমাণ থেকে ২২৮ কোটি ৮ লাখ ৯৪ হাজার ২৮০ টাকা বেশি।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *