এপ্রিল ২৩, ২০২৪

মজার মজার খাবার খেতে তো ভালোই লাগে কিন্তু বেশিরভাগ সময়েই আমাদের স্বাস্থ্য ও ওজনের দিকে খেয়াল রাখতে মনে থাকে না। সেইসঙ্গে পেটের সমস্যা তো থাকেই। বিষয়টি যতক্ষণে বুঝতে পারি, ততক্ষণে বেশ দেরি হয়ে যায়। মুখরোচক ও ভারী খাবার একসঙ্গে অনেকগুলো খেয়ে ফেললে বদহজম, কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়েরিয়া ও অ্যাসিডিটির মতো সমস্যা দেখা দেওয়া খুবই স্বাভাবিক। আপনিও যদি এমন সমস্যায় ভুগে থাকেন তবে এ থেকে মুক্তি পেতে প্রোবায়োটিক খাওয়া শুরু করতে পারেন।

ডিকে পাবলিশিং হাউসের ‌‌‘হিলিং ফুডস’ বইয়ে উল্লেখ করা হয়েছে, ‌‘সুস্থ অন্ত্র খাবার ও পুষ্টি সঠিকভাবে হজম করতে কাজ করে। খাবারে হজম করার জৈব রাসায়নিক প্রক্রিয়া স্বাস্থ্যকর ব্যাকটেরিয়া তৈরি করতে সাহায্য করে। এটি সুস্থ অন্ত্র বজায় রাখে করে এবং অন্ত্রের রোগ প্রতিরোধ করে।’

চলুন জেনে নেওয়া যাক এমন ৫ প্রোবায়োটিক খাবার সম্পর্কে যেগুলো পেটের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে কাজ করে-

পনির

ফার্মেন্টেশন বা গাঁজন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে প্রোবায়োটিক খাবার তৈরি হয়। একই পদ্ধতিতে তৈরি করা হয় পনির। এই প্রোবায়োটিকও পেটের স্বাস্থের জন্য ভালো। এটি কাঁচা খেতে পারেন বা সালাদ, স্যান্ডুইচ ইত্যাদিতে যোগ করেও খেতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন, অতিরিক্ত যেন না খাওয়া হয়। যাদের দুধ ও এ জাতীয় খাবারে সমস্যা হয়, তারা খাওয়ার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে নেবেন।

দই

বেশিরভাগ বাঙালি শেষ পাতে দই খেতে পছন্দ করেন। এমনকী উৎসব-আয়োজনেও থাকে দই। এই খাবার খাওয়ার মাধ্যমে খুব সহজেই পেটের স্বাস্থ্য ভালো রাখা সম্ভব। সবচেয়ে ভালো হয় দুপুরের খাবারের পর এক বাটি টক দই খেতে পারলে। এটি হজমে ভালো সাহায্য করে। হজমক্ষমতা ভালো রাখার জন্য প্রত্যেকেরই প্রোবায়োটিক খাবার খাওয়া উচিত-

ডলি

দক্ষিণ ভারতীয় খাবার হলেও ইডলি অনেক দেশেই জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। এই খাবার খেলে পেটের স্বাস্থ্য ভালো রাখা সহজ হবে। ফার্মেন্টেশনের মাধ্যমে তৈরি এই খাবার তাই নিশ্চিন্তে খেতে পারেন। এটি শরীরে পর্যাপ্ত পুষ্টি পৌঁছাতে কাজ করে।

বাটারমিল্ক

প্রোবায়োটিক-সমৃদ্ধ দই দিয়ে তৈরি বাটারমিল্ক হতে পারে পেটের জন্য বেশ উপকারী একটি পানীয়। এই পানীয় শুধু স্বাস্থ্যকরই নয়, সেইসঙ্গে আপনাকে সতেজ রাখতেও সাহায্য করবে। পেটের স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য নিয়মিত বাটারমিল্ক খেতে পারেন। এটি ঘরেই তৈরি করে নেওয়া সম্ভব।

আচার

আমাদের বেশিরভাগেরই অভ্যাস আছে খাবারের সঙ্গে একটুখানি আচার রাখার। তবে সব ধরনের আচারেই পর্যাপ্ত প্রোবায়োটিক থাকে না। তাই সাধারণ আচারের বদলে ফার্মেন্টেড আচার খান। এটি আপনাকে পেটের যাবতীয় সমস্যা থেকে দূরে থাকতে সাহায্য করবে।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *