এপ্রিল ১, ২০২৩

বিজ ডেস্ক

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খানকে আপাতত নির্বাচনের অযোগ্য ঘোষণা করেছে দেশটির নির্বাচন কমিশন (ইসিপি)। শুক্রবার (২০ অক্টোবর) তোশাখানা মামলায় তাকে দোষী সাব্যস্ত করে সর্বসম্মত রায় দিয়েছে ইসিপির পাঁচ সদস্যের একটি বেঞ্চ। এতে বলা হয়েছে, অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় ইমরান খান জাতীয় পরিষদের সদস্য হওয়ার অযোগ্য। খবর দ্য ডনের।

এদিকে ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) তাৎক্ষণিকভাবে শুক্রবারের এই আদেশ প্রত্যাখ্যান করেছে। দলটি বলছে, এই আদেশের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ জানাতে ইসলামাবাদ হাইকোর্টে আপিল করবে তারা। সমর্থকদের রাস্তায় নামতে আহ্বান জানিয়েছে দলটি।

আগস্টে পাকিস্তান মুসলিম নওয়াজ দলের একজন সদস্য ইমরান খানের বিরুদ্ধে ওই মামলা দায়ের করেন।

মামলার অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রীয় তোশাখানা থেকে বিদেশি বিশিষ্ট ব্যক্তিদের দেওয়া উপহার কিনেছিলেন। কিন্তু নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া ঘোষণাপত্রে এ সম্পদের তথ্য প্রকাশ করেননি।

প্রসঙ্গত, গত রোববার পাকিস্তানের উপনির্বাচনে বড় জয় পেয়ে আবারও আলোচনায় এসেছিলেন ইমরান খান। খাইবার পাখতুনখার তিনটি, পাঞ্জাব প্রদেশের তিনটি এবং করাচি শহরের দুটি আসনে জাতীয় পরিষদ উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই আটটি আসনের সাতটিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন পিটিআই প্রধান ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এর মধ্যে ছয়টিতেই জয় পান তিনি। বাকি একটি আসনে জয় পায় তার জোট।

উপনির্বাচনে বিপুল জয়ের পর ইমরান খান অভিযোগ করেছিলেন, মুসলিম লিগ-এনের নওয়াজ শরীফের নির্দেশনা অনুযায়ী জাতীয় নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হচ্ছে না। তিনি পিটিআইয়ের জনপ্রিয়তাকে ভয় পাচ্ছেন।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published.