এপ্রিল ১৪, ২০২৪

বিজ রিপোর্ট

সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ শুরুর আগের দিন বাংলাদেশ দলপতি সাকিব আল হাসান জানিয়েছিলেন, পয়েন্ট ভাগাভাগি করে বিশ্বকাপ শুরু করায় কিছুটা চাপে রয়েছে প্রোটিয়ারা। সেই চাপকে কাজে লাগিয়ে জয় বাগিয়ে নিয়ে মাঠ ছাড়তে চান তিনি, কিন্তু বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) সিডনিতে দেখা গেল ভিন্ন চিত্র।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের প্রথম ম্যাচে জয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচেই মুদ্রার অন্য পিঠটাও দেখে নিল বাংলাদেশ দল। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১০৪ রানের বড় ব্যবধানে হারলেন সাকিব আল হাসানরা!

বাংলাদেশের বোলাররা ছিলেন সাউথ আফ্রিকার ব্যাটারদের সামনে অসহায়। সেই অসহায়ত্ব লাল-সবুজ জার্সিধারীরা ধরে রাখল ব্যাট হাতেও।

এনরিখ নরকিয়া ও তাবরেজ শামসির বোলিং তোপের সামনে টাইগার ব্যাটারদের অবস্থাটা এমন ছিল যে, আউট হতে পারলেই যেন বেঁচে যান তারা। ব্যাটিং ব্যর্থতার কারণে আরও একবার হারকে সঙ্গী করে মাঠ ছাড়তে হলো সাকিব বাহিনীকে।

সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ হেরেছে ১০৪ রানে। প্রোটিয়াদের করা ২০৫ রানের জবাবে এক রাইলি রুশোর করা ১০৯ রানের সমান স্কোর ১১ ব্যাটার মিলেও করতে পারেননি। দল আটকে গেল ১০১ রানেই।

রান তাড়ায় প্রথম ওভারের শেষ দুই বলে কাগিসো রাবাদাকে টানা দুই ছক্কা হাঁকান বাঁহাতি ব্যাটার সৌম্য সরকার। দুই ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ২৭। এমন দুর্দান্ত শুরুর পর তৃতীয় ওভারে নরকিয়ার বলে আউট হন সৌম্য।

এরপর নাজমুল হোসেন শান্তও ৯ বলে ৯ রান করে পথ ধরেন সাজঘরের। নরকিয়ার ওই ওভারেই বোল্ড হন বাঁহাতি এ ব্যাটার। ৪ বলে ১ রান করে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়েন টাইগার অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। আর ৫ বল খেলে ১ রান করা আফিফ হোসেনের উইকেটটি নেন রাবাদা।

আর তাতেই সিডনির ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে পাওয়ার প্লেতে ৪৭ রান সংগ্রহ করলেও ৪ উইকেট হারিয়ে বসেন টাইগাররা।

বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচে ডাক পাওয়া মেহেদি হাসান মিরাজও আলো ছড়াতে পারেননি। ১৩ বলে ১১ করে তাবরেজ শামসিকে তুলে মারতে গিয়ে ক্যাচ দিয়ে আউট হন এ অলরাউন্ডার। আর কেশভ মহারাজকে দুই পা এগিয়ে মারতে গিয়ে শূন্য রানে স্টাম্পিং হন মোসাদ্দেক হোসেন।

এরপর নুরুল হাসান সোহান ও হাসান মাহমুদের কেউই ছুঁতে পারেনি দুই অঙ্কের ঘর। শেষতক সব উইকেট হারিয়ে ১০১ রানেই থেমে যায় বাংলাদেশের ইনিংসের চাকা।

সাউথ আফ্রিকার হয়ে আনরিখ নরকিয়া নেন ৪টি উইকেট। তাবরেজ শামসির ঝুলিতে যায় ৩ উইকেট। কেশভ মহারাজ ও কাগিসো রাবাদা নেন একটি করে উইকেট।

এর আগে প্রথম ওভারে তাসকিন আহমেদ উইকেট তুলে চাপে ফেলার চেষ্টা করে সাউথ আফ্রিকাকে। চাপ সামলে উল্টো ব্যাটিং ঝড় তোলে প্রোটিয়া দুই ব্যাটার রাইলি রুসো ও কুইন্টন ডি কক।

এই দুই ব্যাটারের মারকুটে ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশকে ২০৬ রানের পাহাড়সম লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় সাউথ আফ্রিকা।

ম্যাচসেরার পুরস্কার পান ৫৬ বলে ১০৯ রান করা রুশো।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *