এপ্রিল ২৩, ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পারিবারিক কোম্পানি কর ফাঁকির মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়েছে। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) দেশটির একটি আদালত ট্রাম্প অর্গানাইজেশন নামের ওই কোম্পানিকে কর ফাঁকি ও ঘুষ প্রদানের অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করে।

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স। এতে বলা হয়েছে, ট্রাম্পের কোম্পানির বিরুদ্ধে কর ফাঁকি ও কর্মকর্তাদের ঘুষ দেওয়ার অভিযোগের প্রমাণ পেয়েছে তদন্তকারী কর্মকর্তারা। এসব অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় অভিযুক্ত কোম্পানিটিকে জরিমানা করে চূড়ান্ত রায় ঘোষণা করা হবে।

বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে ইতোমধ্যেই বিভিন্ন আইনি জটিলতার মধ্যে আছেন ২০২৪ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে পুনরায় প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে যাওয়া ট্রাম্প। এখন নতুন করে যুক্ত হলো আরেকটি ইস্যু।

ট্রাম্প অর্গানাইজেশন বিশ্বব্যাপী আবাসন, হোটেল, গলফ কোর্সের ব্যবসা পরিচালনা করে। কর ফাঁকি দিতে ১৫ বছর ধরে নানান কার্যক্রম— উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের ঘুষ প্রদান এবং স্বাধীন চুক্তিভিত্তিক প্রতিষ্ঠানকে বোনাস দেওয়ার মতো কাজগুলো করেছে তারা। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রধান অর্থ কর্মকর্তা অ্যালেন ওয়েসেলবার্গকে ঘুষ দেওয়ার তথ্যও সামনে এসেছিল। এসব অভিযোগের প্রমাণ পেয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তারা।

বার্তাসংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, দোষী সাব্যস্ত হওয়ায় ট্রাম্প অর্গনাইজেশনকে প্রায় ১৬ লাখ ডলার জরিমানা করা হতে পারে। তবে ট্রাম্পকে ব্যক্তিগতভাবে এ অভিযোগে অভিযুক্ত করা হয়নি।

নিউইয়র্ক স্টেট কোর্টের বিচারপতি জুয়ান মারচান এ বিচার প্রক্রিয়াটি দেখছেন। তিনি আগামী বছরের ৩ জানুয়ারি মামলার চূড়ান্ত রায় দেওয়ার তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

এদিকে ট্রাম্প অর্গানাইজেশনের ব্যবসার যে পরিধি তাতে ১৬ লাখ ডলার জরিমানা তাদের জন্য খুব বড় কোনো বিষয় না। কিন্তু কর ফাঁকি ও জালিয়াতিতে দোষী সাব্যস্ত হয়ে জরিমানা গুণতে হবে, কারণে পরবর্তীতে ব্যবসায়িক কার্যক্রম পরিচালনা করতে সমস্যার সম্মুখীন হবে ট্রাম্পের কোম্পানি।

 

সূত্র: রয়টার্স

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *