এপ্রিল ১৪, ২০২৪

ঘূর্ণিঝড় মোখা মোকাবিলায় কক্সবাজার ও চট্টগ্রামে ১ হাজার ৬০৬টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এসব কেন্দ্রে ১০ লাখ ৭ হাজার ১০০ জনকে আশ্রয় দেওয়া যাবে।

শুক্রবার (১২ মে) দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের সব স্তরে ব্যাপক প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। উপজেলা, পৌরসভা, ইউনিয়ন, পৌর ও ইউনিয়ন ওয়ার্ড পর্যায়ে সভা করে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য সব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কক্সবাজার জেলায় ২০ লাখ ৩০ হাজার নগদ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ৫৯০ মেট্রিক টন চাল, সাড়ে ৩ মেট্রিক টন টোস্ট বিস্কুট, ৩ টন ড্রাই কেক, ২০ হাজার প্যাকেট খাবার স্যালাইন ও ৪০ হাজার পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

এই জেলায় ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচির (সিপিপি) ৮ হাজার ৬০০ ও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ২ হাজার ২০০ স্বেচ্ছাসেবী প্রস্তুত রাখা হয়েছে। কক্সবাজারে ৫৭৬টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। এসব কেন্দ্রে ৫ লাখ ৫০ হাজার ৯৯ জন আশ্রয় নিতে পারবেন।

চট্টগ্রামে নগদ ১৪ লাখ ৮ হাজার ৫০০ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। ৬০৮ মেট্রিক টন চাল, সাড়ে ৩ মেট্রিক টন টোস্ট বিস্কুট, ৩ মেট্রিক টন ড্রাই কেক ও ৩০ হাজার প্যাকেট খাবার স্যালাইন মজুত রাখা হয়েছে। দেওয়া হয়েছে ৬০ হাজার পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট।

চট্টগ্রামে ৫৩০টি স্থায়ী ও ৫০০টি অস্থায়ী আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যেগুলোর ধারণক্ষমতা ৫ লাখ ১ হাজার ১১০ জন। সিপিপির ৮ হাজার ৮৮০ ও রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ৮ হাজার স্বেচ্ছাসেবী প্রস্তুত রাখা হয়েছে। তারা আবহাওয়ার বার্তা প্রচার করছে।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *