এপ্রিল ২২, ২০২৪

পাঁচ বছরেরও বেশি সময় ধরে লভ্যাংশ না দেয়া পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি এমারল্ড অয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের শেয়ারের দর অস্বাভাবিকভাবে বেড়েই চলেছে। দেখা যাচ্ছে মাত্র এক মাসের মধ্যে এই কোম্পানিটির শেয়ার দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়ে গেছে। তাই কোম্পানির শেয়ারের এমন সন্দেহজনক দাম বাড়ার বিষয়টি তদন্ত করতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে নির্দেশ দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সম্প্রতি এবিষয়ে নির্দেশ দিয়ে ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) বরাবর একটি চিঠি পাঠিয়েছে কমিশন। ডিএসইকে চিঠি জারির ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

বিএসইসির চিঠিতে বলা হয়েছে, সামপ্রতিক সময়ে এমারল্ড অয়েলের শেয়ারের দাম ও লেনদেন উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে দেখা যাচ্ছে, তালিকাভুক্ত কোম্পানিটির শেয়ার দর বেড়ে ৩০ টাকা ৮০ পয়সা থেকে ৫২ টাকা ৩০ পয়সায় দাঁড়িয়েছে। মাত্র ২৫ দিনের মধ্যে যা ২ এপ্রিল থেকে ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত ৬৯ দশমিক ৮১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। যা অস্বাভাবিক এবং সন্দেহজনক বলে মনে করছে বিএসইসি।

আর এ বিষয়টি কমিশনের নজরে আসায় কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেনের বিষয়ে ডিএসইকে তদন্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যা চিঠি পাওয়ার ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে কমিশনে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলেছে বিএসইসি।

তথ্য পর্যালোচায় দেখা যায়, গত ২ এপ্রিল কোম্পানিটির প্রতিটি শেয়ারের দাম ছিল ৩০.৮০ টাকা। যা ২ মে লেনদেন শেষে প্রতিটি শেয়ারের দাম দাঁড়িয়েছে ৬৪.৯০ টাকায়। অর্থাৎ মাত্র এক মাসের দিনের মধ্যে কোম্পানিটির শেয়ার দাম বেড়ে দ্বিগুণের বেশি হয়ে গেছে।

শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *